তিস্তার পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে

ভারী বর্ষণ ও উজানের ঢলে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে সর্ববৃহৎ সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারেজ ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সোমবার রাত ১১টায় শেষ খবর পর্যন্ত বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল তিস্তার পানি। তার আগে রাত ৯টায় এই পয়েন্টে বিপদসীমার ১৫ সেন্টিমিটার (৫২ দশমিক ৭৫ সেন্টিমিটার) ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয় পনি। যা রাত ১১টায় আরো ৫ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল আলম চৌধুরী জানায়, তিস্তার পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় নিলফামারীর ডিমলা উপজেলার টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের চড়খড়িবাড়ি এলাকায় স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত বালির বাঁধটি হুমকির মুখে পড়েছে। এরইমধ্যে বাঁধের একটি অংশে ভাঙন দেখা দিয়েছে।

পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় খাঁলিশাচাঁপানী ইউনিয়নের ছোটখাতা, বানপাড়া ও বাঁইশপুকুর চর এলাকায় ঘরবাড়ি তলিয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। একই অবস্থা ঝুঁনাগাছচাঁপানী ইউনিয়নের ছাতুনামা ফরেস্টের চর। পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের ঝাড়সিঙ্গের চরের বসতভিটায় এখন বন্যার পানি বইছে। প্রাণ বাঁচাতে বন্যাকবলিত মানুষজন গবাদিপশু ও আসবাবপত্রসহ তিস্তা নদীর ডান তীর বাঁধ ও উঁচুস্থানে আশ্রয় নিয়েছেন।

অপরদিকে জেলার জলঢাকা উপজেলার ডাইয়াবাড়ি, গোলমুন্ডা, শৈলমারী, কৈমারী ইউনিয়নের চরবেষ্টিত গ্রামগুলোতে বন্যার পানি প্রবেশ করার খবর পাওয়া গেছে।






Related News

  • বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের শাহাদাতবার্ষিকী পালিত নড়াইলে
  • অভিযুক্ত হচ্ছেন ৬জন মীম-রাজিব নিহতের ঘটনায়
  • বাস চাপায় প্রাণ গেল পুলিশ কর্মকর্তার
  • সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩ নাটোরে
  • ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত মাগুরায়
  • সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ জনের প্রাণহানি
  • ৩১টি গরু নিয়ে বুড়িগঙ্গায় ট্রলার ডুবি, ৩ মালিক নিখোঁজ