আ.লীগ নেতাকর্মীদের হত্যা করা হয়েছিল অপারেশন ক্লিনহার্টে

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মীকে অত্যাচার নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার বিরোধী দলের হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী ও সরকারি দলের সদস্য এস এম মোস্তফা রশিদী সুজার মৃত্যুতে জাতীয় সংসদে আনীত শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে একথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ক্লিনহার্ট অপারেশনের নামে দেড়শ’ মানুষকে হত্যা করা হয়, এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী ছিলেন। এখানে অনেক সংসদ সদস্য রয়েছেন যারা নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা অনেক দক্ষ দু’জন সংসদ সদস্যকে হারিয়েছি। এস এম মোস্তফা রশিদী সুজা একজন ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সংগঠক ছিলেন। তিনি একজন প্রাণবন্ত মানুষ ছিলেন। তাকে হারিয়ে দলের অনেক ক্ষতি হয়েছে, যা আর পূরণ হবার নয়।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাজুল ইসলাম চৌধুরীর বলিষ্ঠ ভূমিকা ছিল। তিনি মনে প্রাণে চেয়েছিলেন নির্বাচনটা যাতে হয়। এই নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হওয়ার ব্যাপারে তার আন্তরিকতা ছিল। ওই নির্বাচনটা একটা চ্যালেঞ্জ ছিল।

বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ বলেন, তাজুল ইসলাম ও মোস্তফা রশিদী সুজা এত তাড়াতাড়ি আমাদের ছেড়ে চলে যাবেন এটা আমরা মনে করিনি। তারপরও প্রকৃতির নিয়ম, আমাদের মেনে নিতেই হবে।






Related News

  • কে খায় ইবির হলের টাকা…
  • ‘প্রধানমন্ত্রীর’ প্রস্তাব রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ‘সেফ জোন’সহ ৩
  • রাষ্ট্রপতি : যাদের কথা-কাজে মিল আছে, তাদের ভোট দিন
  • প্রধানমন্ত্রী : ঢাকার চারপাশে এলিভেটেড রিং রোড হবে
  • প্রধানমন্ত্রী : স্কুল থেকেই শেখানো উচিত ট্রাফিক নিয়ম
  • আরো গভীর হলো বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক
  • মুক্তিযোদ্ধার ভাতা ভাই-বোনও পাবেন
  • যেকোনো দিন তফসিল ৩০ অক্টোবরের পর