স্পর্শিয়ার ভিডিওটি অশ্লিলতার সীমা ছাড়িয়েছে

বেশ কিছুদিন হল পর্দায় তেমন একটা দেখা মিলে না মডেল ও অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়ার। নির্মাতা রাফসান আহসানের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর অভিনয় থেকে অনেকটাই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন তিনি। চলে গেছেন ক্যামেরার সামনে থেকে পেছনে। নেমেছেন পরিচালনায়, খুলেছেন প্রডাকশন হাউজের ব্যবসা।

তবে একেবারেই যে পর্দা থেকে সরে গেছেন এই পর্দা কন্যা তা কিন্তু না। আবারো বহুদিন পর তার দেখা মিলল পর্দায়। তার এই দেখা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বিতর্কের।

গতকাল শুক্রবার (৭ সেপ্টেম্বর) স্পর্শিয়ার একটি মিউজিক ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে, যা ইতিমধ্যে বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মিউজিক ভিডিওটি নিয়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়। তুমুল সমালোচিত হয়ে মিডিয়ার সঙ্গে দীর্ঘদিনের দূরত্ব যেন চটজলদি ঘুচিয়ে নিচ্ছেন স্পর্শিয়া।

‘চায়ের কাপে তুমুল বৃষ্টি’ শিরোনামে একটি গানের মিউজিক ভিডিও-তে মডেল হয়েছেন স্পর্শিয়া। তার বিপরীতে দেখা গেছে আরেক মডেল সুমিত সেনগুপ্তকে। শিল্পী পিয়াল হাসানের এই গানের মিউজিক ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন সৈকত নাসির।

গানটির ভিডিওতে স্পর্শিয়া ও সুমিতের ১৪টি চুমুর দৃশ্য দেখা যায়। এমন অবস্থায় ভিডিওটি অশ্লিলতার সীমা ছাড়িয়েছে বলে মনে করেন অনেকে। ইউটিউবে গানটি এ পর্যন্ত ১২ হাজারেরও বেশি দর্শক দেখেছেন। সেই সঙ্গে রয়েছে প্রচুর নেতিবাচক মন্তব্য। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই মিউজিক ভিডিওটির নগ্ন সমালোচনা করেছেন।

ফেসবুকে মিউজিক ভিডিওটি শেয়ার করে একজন লিখেছেন, ‘গান আর এখন শোনার বিষয় নয়, দেখার বিষয়। আর এই সুযোগে যাচ্ছেতাইভাবে মিউজিক ভিডিও তৈরি হচ্ছে বাংলাদেশে।’

ইউটিউবে গানটির মন্তব্যের জায়গায় একজন লিখেছেন, ‘পিয়াল হাসানের প্রতি খুব সম্মান ছিল। গানের নামে এভাবে নষ্টামি ছড়ানো মানা যায় না। ছিঃ ছিঃ ছিঃ।’

এরকম অসংখ্য নেতিবাচক মন্তব্য ইন্টারনেটে ঘোরাফেরা করছে। কেউ কেউ আবার মিউজিক ভিডিওটির বিরুদ্ধে নকলের অভিযোগও তুলেছেন।