মাঝে মাঝে অসহায় বোধ করি : ওবায়দুল কাদের

মাঝে মাঝে অসহায় বোধ করি এ রকম কেন হয়। এতদিন রাস্তায় দুই-চারশো প্রতিদিন খুন হতো। এখন ২২টি সড়কে পুরোপুরি সাকসেসফুল (বন্ধ) হয়েছে। ইজিবাইক কারখানা আছে কয়েকশো, উৎসমুখ বন্ধ করতে পারিনি।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ে সড়ক দুর্ঘটনা বিষয়ে বুদ্ধিজীবী, বিশেষজ্ঞ ও পরিবহন নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, সড়ক পরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফেরাতে দায়িত্ব নেয়ার প্রথম দিন থেকে চেষ্টা করে যাচ্ছি, হাল ছাড়িনি। দু’দিন আগে দেখলাম দশ জন মারা গেছেন, দশ জনই মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায়। এটা ভয়ংকর, মূর্তিমান আতঙ্ক!

কাদের বলেন, নতুন সড়ক আইনটা কেবিনেটে নীতিগত অনুমোদন হয়েছে। কিশোর-কিশোরীরা নিরাপদ সড়কের আন্দোলন করেছিল। তাদের স্যালুট, তারা আন্দোলনটা করেছিল বলেই এ আইনটা যেভাবেই হোক আলোর মুখ দেখেছে।

তিনি বলেন, আমরা এই অধিবেশনেই আশা (আইন পাস) করছি। এই অধিবেশনই এ সরকারের শেষ অধিবেশন। সংসদ অনেক দিন হয়তো গ্যাপ দিয়ে চলবে। এটাই শেষ অধিবেশন। এর পরে আর অধিবেশন হবে না। পার্লামেন্ট ভাঙবে না, কিন্তু কোনও অধিবেশনও হবে না। এমপিদের পাওয়ারও থাকবে না।

সেতুমন্ত্রী বলেন, সড়ক পরিবহন আইনে শাস্তির বিধান কম থাকায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারীরা সংযোজন-বিয়োজনের দাবি জানিয়ে আসছিলেন।

সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, পার্লামেন্টে আমি (আইন) উপস্থাপন করবো। এরপর এটা স্ট্যান্ডিং কমিটিতে যাবে।

মন্ত্রী বলেন, স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান আপনাদের কয়েকজনকে ডাকতে পারেন, পরামর্শ শুনতে পারেন। (আইনটি) পাস হওয়ার আগে এটা ফাইনাল- এটা মনে করার কারণ নেই। কিছু কিছু জায়গায় সংযোজন ও সংশোধনের সুযোগ এখনও রয়েছে। আপনারা সবাই পরামর্শ দেবেন। আমার মনে হয় এ নিয়ে হতাশ হওয়ার কোনও কারণ নেই।






Related News

  • প্রধানমন্ত্রীকে ফখরুল : বিশ্বনেতারা চাইলে কী ক্ষমতায় থাকা যায়
  • চিকিৎসার প্রস্তুতি শুরু খালেদা জিয়ার
  • মওদুদ আহমদ : এক মাসের মধ্যেই রাজনীতিতে পরিবর্তন আসবে
  • কাদের বললেন,এটা কি মামা বাড়ির আবদার
  • প্রতীকী অনশন বিএনপির খালেদার মুক্তির দাবিতে
  • মওদুদ : আন্দোলনের মাধ্যমেই কারামুক্ত করবো খালেদা জিয়াকে
  • আজ খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে রিটের শুনানি
  • আ. লীগের শোকজ : ২ কেন্দ্রীয় নেতা, ৩ এমপিসহ ১৪ নেতাকে