ইভিএম ব্যবহার রাজনৈতিক দলগুলো সম্মতি দিলেই

রাজনৈতিক দলগুলো সম্মতি দিলেই জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা।

সোমবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওস্থ নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের (ইটিআই) ভবনের সম্মেলন কক্ষে দুই দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধন শেষে সিইসি বলেন, আইন পাসের পর সক্ষমতা অর্জনের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করা হবে। ত্রুটিমুক্ত মেশিনে যতগুলো আসনে সম্ভব ইভিএম ব্যবহারের চেষ্টা করা হবে।

ইভিএম নিয়ে আলোচনা-সমালোচনাকে ইতিবাচকভাবেই দেখছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।  তবে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলে ৩০০ আসনে দৈবনির্বাচনের মাধ্যমে ইভিএম ব্যবহারের জন্য বাছই করা হবে। যৌক্তিক সমালোচনায় ইভিএম নিয়ে সব প্রশ্নের অবসান হবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

এর আগে রোববার ইভিএম নতুন প্রযুক্তি বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের ঘোষণা ছিল ডিজিটাল বাংলাদেশে গড়ে তুলবো। নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার তারই একটি পার্ট। ইভিএম নিয়ে আসার জন্য আমিই পক্ষে ছিলাম। এখনও পক্ষে আছি। তবে হ্যাঁ, তাড়াহুড়ো করে ইভিএম চাপিয়ে দেওয়া যাবে না।

রোববার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। সদ্য সমাপ্ত বিমসটেকের চতুর্থ সম্মেলন উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।






Related News

  • কে খায় ইবির হলের টাকা…
  • ‘প্রধানমন্ত্রীর’ প্রস্তাব রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ‘সেফ জোন’সহ ৩
  • রাষ্ট্রপতি : যাদের কথা-কাজে মিল আছে, তাদের ভোট দিন
  • প্রধানমন্ত্রী : ঢাকার চারপাশে এলিভেটেড রিং রোড হবে
  • প্রধানমন্ত্রী : স্কুল থেকেই শেখানো উচিত ট্রাফিক নিয়ম
  • আরো গভীর হলো বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক
  • মুক্তিযোদ্ধার ভাতা ভাই-বোনও পাবেন
  • যেকোনো দিন তফসিল ৩০ অক্টোবরের পর