হাসিনা-মোদী বিমসটেকে বৈঠক করবেন

ঢাকা : নেপালে অনুষ্ঠেয় বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নেবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই দুই নেতার বৈঠকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বিলম্বিত হওয়ায় বাংলাদেশকে দায়ী করে সম্প্রতি সু চির দেয়া বক্তব্য নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

অন্য দিকে বিমসটেক সম্মেলনে যাচ্ছেন না মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। তার বদলে মিয়ানমারের প্রতিনিধিত্ব করবেন দেশটির প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট।

ধারণা করা হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়টি এড়িয়ে যেতে এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মুখোমুখি না হতেই বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে যাচ্ছেন না সু চি।

বৃহস্পতিবার কাঠমান্ডুতে আঞ্চলিক জোটভুক্ত সাত দেশের নেতাদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য ঠিক হয়েছে ‘শান্তির, সমৃদ্ধির, টেকসই বে অব বেঙ্গলের লক্ষ্যে’।

সম্মেলনের উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুর উদ্দেশ্যে রওনা হবেন শেখ হাসিনা।
সফর শেষে শুক্রবার দুপুরে দেশে ফেরার কথা রয়েছে তার।

কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন নেপালের উপ-প্রধানমন্ত্রী ঈশ্বর পোখারেল এবং নেপালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাশরাফি বিনতে শামস।

বে অব বেঙ্গল ইনিশিয়েটিভ ফর মাল্টি সেক্টরাল টেকনিক্যাল অ্যান্ড ইকোনমিক কোঅপারেশন বা বিমসটেক হল বঙ্গোপসাগর উপকূলবর্তী সাত দেশের একটি জোট।

বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা ও থাইল্যান্ড ১৯৯৭ সালে ব্যাংকক ঘোষণার মধ্য দিয়ে এ উদ্যোগের সূচনা করে। পরে মিয়ানমার, নেপাল ও ভুটান বিমসটেকে যোগ দেয়।

ভৌগলিকভাবে দক্ষিণ এশিয়াকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করেছে বিমসটেক, কাজ করছে সার্ক ও আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে আন্তঃআঞ্চলিক সহযোগিতার একটি সেতুবন্ধ হিসেবে।






Related News

  • কে খায় ইবির হলের টাকা…
  • ‘প্রধানমন্ত্রীর’ প্রস্তাব রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ‘সেফ জোন’সহ ৩
  • রাষ্ট্রপতি : যাদের কথা-কাজে মিল আছে, তাদের ভোট দিন
  • প্রধানমন্ত্রী : ঢাকার চারপাশে এলিভেটেড রিং রোড হবে
  • প্রধানমন্ত্রী : স্কুল থেকেই শেখানো উচিত ট্রাফিক নিয়ম
  • আরো গভীর হলো বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক
  • মুক্তিযোদ্ধার ভাতা ভাই-বোনও পাবেন
  • যেকোনো দিন তফসিল ৩০ অক্টোবরের পর