অপু বিশ্বাস কোরবানি দেবেন

বলিউড সুপারস্টার শাকিব খানের সঙ্গে বিয়ের আগে হিন্দু ধর্মের অনুসারী ছিলেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। বিয়ের সময় ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন এ অভিনেত্রী। এসময় নাম পরিবর্তন করে অপু বিশ্বাস থেকে হয়ে যান অপু ইসলাম খান। শাকিবের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এখন তিনি একা। এই অবস্থায় অপু কোন ধর্মে থাকবেন সেটি নিয়েই শুরু হয় জোর আলোচনা।

সম্প্রতি গণমাধ্যমকে বিষয়টি খোলাসা করেন অপু। তিনি জানান, আমি স্বামীর জন্য মুসলমান হয়েছিলাম। যদিও এখন স্বামী নেই, অনেকে এ অবস্থায় নিজ ধর্মে ফিরে যায় পরিবারের জন্য। কিন্তু আমি মুসলমানই থাকব। বারবার তো ধর্ম বদলাতে পারব না। ইসলাম বিশ্বাস করেই এ ধর্ম পালন করি।

এদিকে ইসলামি রীতিতে সামর্থ্য থাকলে কোরবানি দেওয়া ফরজ। সেই হিসেবে অপু বিশ্বাস কী পশু কোরবানি বিশ্বাস করেন? বা শাকিব খান থেকে আলাদা হয়ে যাওয়া অপু কী এবার কোরবানি দেবেন? এমন প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে ভক্তদের মনে। তবে ভক্তদের অপেক্ষা বাড়াননি।

জানিয়ে দিলেন উত্তর, কোরবানি ঈদের সব প্রস্তুতির কথাই জানালেন এ তারকা। ঢাকাতেই ঈদ করবেন তিনি। আর আজকালের মধ্যেই কোরবানির পশু কেনা হবে বলে জানিয়েছেন।

গণমাধ্যমকে অপু বলেন, ‘আমার সংসার, দায়িত্বও আমার। কাজের ব্যস্ততা আছে আবার কোরবানিও গুরুত্বপূর্ণ। ছেলের জন্য ঈদের কেনাকাটাও করতে হবে। এক হাতে অনেক কিছু সামলাতে হয়। অনেক কিছু ইচ্ছে থাকলেও পেরে ওঠা যায় না। এ বছরে তাই তিনটি খাসি কোরবানি দেয়ার পরিকল্পনা করেছি। আজকেই কেনা হবে হয়তো। আমার সময় নেই। ইচ্ছে ছিল ছেলেকে পশুর হাট দেখাতে নিয়ে যাব।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রত্যেক মুসলমানেরই কর্তব্য সামর্থ্য থাকলে কোরবানি দেয়া। পবিত্র এই কোরবানি আত্মত্যাগ আর নিজেকে শুদ্ধ করে নেয়ার অনুপ্রেরণা যোগায়। পশু কোরবানির সঙ্গে সঙ্গে প্রত্যেকে নিজেদের মনের ভেতরের পশুত্বকে, স্বার্থবাদী মনটাকে কোরবানি দেয়ার চেষ্টা করেন। সবার কোরবানি যেন কবুল হয়। আমিও সবার কাছে দোয়া চাই। আমার ছেলে জয়ের জন্য দোয়া চাই।’